ঢাকা, শনিবার, ২রা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

চুন্নুর পোস্টার নিয়ে ক্ষোভ কিশোরগঞ্জ আ’লীগে

চুন্নুর পোস্টার নিয়ে ক্ষোভ কিশোরগঞ্জ আ’লীগে

অনলাইন ডেস্ক

জাতীয় পার্টির (জাপা) মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নুর নির্বাচনী পোস্টার নিয়ে কিশোরগঞ্জে চলছে আলোচনা সমালোচনা। নির্বাচনী পোস্টারে চুন্নু লিখেছেন, ‘জাতীয় পার্টির মনোনীত ও আওয়ামী লীগ সমর্থিত’ প্রার্থী তিনি। এ নিয়ে তাঁর নির্বাচনী এলাকা করিমগঞ্জ ও তাড়াইল উপজেলায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। কারণ কিশোরগঞ্জ-৩ এর ওই আসনে আওয়ামী লীগের চারজন স্বতন্ত্র প্রার্থী প্রতিদ্ব›িদ্বতা করছেন।

জানা গেছে, কিশোরগঞ্জ-৩ আসনে সমঝোতার প্রার্থী হয়েছেন মুজিবুল হক চুন্নু। মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন ১৭ ডিসেম্বর শেষ মুহূর্তে আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টির মধ্যে সমঝোতা হয়। যার প্রেক্ষিতে ফলে এই আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী করিমগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক নাসিরুল ইসলাম খান আওলাদ তাঁর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন।

স্থানীয় লোকজন বলছেন, ২০০৮ সাল থেকে চুন্নু নৌকায় চড়ে সংসদে যাচ্ছেন। কিন্তু এবার সমঝোতার কারণে নৌকার প্রার্থী প্রত্যাহার কওে নিলেও আওয়ামী লীগ থেকে চারজন স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়ে গেছেন। সমঝোতার কারণে আওয়ামী লীগ এই আসনে দলীয় প্রার্থী দেয়নি। কিন্তু আওয়ামী লীগ থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার সুযোগ দেওয়া হয়েছে। সমঝোতাকে আওয়ামী লীগের সমর্থন ভাবার সুযোগ নেই।

প্রার্থিতা প্রত্যাহার করা নাসিরুল ইসলাম আওলাদ বলেছেন, মুজিবুল হক চুন্নুকে এই আসনে আওয়ামী লীগ ছাড় দিয়েছে। কিন্তু সমর্থন দেয়নি। কাজেই পোস্টারে ‘আওয়ামী লীগ সমর্থিত’ লেখাটা অন্যায় হয়েছে।
তাড়াইল উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আজিজুল হক মোতাহারও বলেছেন, ‘চুন্নুকে আওয়ামী লীগ সমর্থন দেয়নি। তাঁর পক্ষে আমরা নির্বাচনী কাজও করছি না। আমরা অপেক্ষায় আছি, আওয়ামী লীগের চারজন স্বতন্ত্র প্রার্থীর মধ্যে আলোচনা করে একজন প্রার্থী হলে আমরা তাকে নিয়ে মাঠে নামবো।’

এ বিষয়ে জানতে মুজিবুল হক চুন্নুর সঙ্গে যোগাযোগের মোবাইলে চেষ্টা করলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

শেয়ার করুনঃ

স্বত্ব © ২০২৩ ঢাকা মেইল ২৪