মঙ্গলবার, ৭ ডিসেম্বর ২০২১ইংরেজী, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বাংলা

বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম চালু

মোঃ মেহেদী হাসান পঞ্চগড় প্রতিনিধি

২০২১-০৬-০৫ ১২:৪৩:১২ /

বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম চালু। দেশের একমাত্র চতুর্দেশীয় স্থলবন্দর পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধার আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ থাকার পরে শনিবার (৫ জুন) চালু হলো আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম। বাংলাবান্ধা আমদানি-রপ্তানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মেহেদী হাসান খান বাবলা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। ভারত, নেপাল ও ভুটান থেকে পঞ্চগড়ের এই স্থলবন্দর দিয়ে বাংলাদেশে আমদানি-রপ্তানি হয়। তবে আজ সকাল থেকে বিভিন্ন কৃষিপণ্য নিয়ে কয়েকটি ট্রাক বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর দিয়ে দেশের প্রবেশ করেন। জানা যায়,(২৫ মে) মঙ্গলবার বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।এতে এলাকার ব্যবসায়ী,বন্দর শ্রমিক,জনপ্রতিনিধি, স্থানীয়রা বলেন ভারত, নেপাল এবং ভুটানে আমদানি-রপ্তানি হয়ে আসছে এই স্থলবন্দর দিয়ে।এতে করে বাংলাদেশ করোনার ভাইরাস বিস্তার করতে পারে। করোনা ভাইরাসের প্রভাবে পঞ্চগড়সহ দেশের মানুষ ঝুঁকিতে আছে তাই করোনা পরিস্থিতি সতর্কতায় স্থল বন্দর বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল। এই বিষয়ে বাংলাবান্ধা আমদানি-রপ্তানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মেহেদী হাসান খান বাবলা বলেন,গত কয়েকদিন ধরে বন্ধ ছিল।আর গতকাল স্থলবন্দর বন্ধের শেষ দিন ছিল। কিন্তু কালকের দিনটি শুক্রবার। শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির কারণেও বন্ধ ছিল। তবে শনিবার সকাল থেকে বন্দরের আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম চালু হয়েছে।

এ জাতীয় আরো খবর

বেনাপোল বন্দরে দেড় বছর পর পণ্যবাহী ট্রাক স্ক্যানিং কার্যক্রম শুরু

বেনাপোল বন্দরে দেড় বছর পর পণ্যবাহী ট্রাক স্ক্যানিং কার্যক্রম শুরু

বিএসএফের হয়রানির কারনে বেনাপোল বন্দর দিয়ে আমদানী বানিজ্য বন্ধ

বিএসএফের হয়রানির কারনে বেনাপোল বন্দর দিয়ে আমদানী বানিজ্য বন্ধ

বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম চালু

বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম চালু

পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানি ৭ দিন বন্ধ

পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানি ৭ দিন বন্ধ

ঠাকুরগাঁওয়ে কৃষকের আগ্রহ না থাকায় বিলুপ্তির পথে কাউন চাষ

ঠাকুরগাঁওয়ে কৃষকের আগ্রহ না থাকায় বিলুপ্তির পথে কাউন চাষ

সিএমএসএমই উদ্যোক্তাদের মাঝে ঋণের চেক বিতরণ

সিএমএসএমই উদ্যোক্তাদের মাঝে ঋণের চেক বিতরণ