1. [email protected] : Dhaka Mail 24 : Dhaka Mail 24
  2. [email protected] : unikbd :
বুধবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৫:২১ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
গাজীপুর সিটির নতুন পরিষদের সভায় কিরণের দুর্নীতির তদন্তের সিদ্ধান্ত গাজীপুরের সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়রের দুর্নীতি, অনুমোদন ছাড়াই হাজার কোটি টাকার সহ্রাধিক প্রকল্প বেনাপোলে পৃথক অভিযানে ২০৯ বোতল ফেনসিডিল সহ আটক-১ বেনাপোলে সব গোয়েন্দা সংস্থার নজরদারি থাকা সত্বেও বোমা মজুদ থেমে নেই বেনাপোল স্থল বন্দর এলাকা থেকে একদিনের ব্যবধানে আবারো ২৩ বোমা উদ্ধার বেনাপোলে বোমা মজুদ রাখার অভিযোগে শ্রমিক সর্দার বাদল আটক আযুর্বেদিক প্রতিষ্ঠান আয়ুশ লিঃ এর মালিক মোস্তফা ও তার স্ত্রী কারাগারে বেনাপোল বন্দর এলাকায় মাটির নিচে থেকে উদ্ধার হলো তাজা ১৮ টি বোমা বেনাপোলে যশোর বøাড ফাউন্ডেশন এর তৃতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন বেনাপোল নোম্যান্সল্যান্ডে এপার বাংলা ওপার বাংলা সৌহার্দ সম্প্রীতি ও ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে রাখি বন্ধন উৎসব

বেনাপোলে সব গোয়েন্দা সংস্থার নজরদারি থাকা সত্বেও বোমা মজুদ থেমে নেই

  • প্রকাশিতঃ শনিবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৩২ বার পঠিত

বেনাপোল প্রতিনিধিঃ
দেশের গুরুত্ব¡পূর্ণ এলাকা এবং ভারত প্রবেশ এর রাষ্ট্রের প্রবেশদ্বার স্থল বন্দর বেনাপোল । এখানে রাষ্ট্রের গুরুত্বপুর্ন সব ধরনের গোয়েন্দা সংস্থার লোক বিচরন করেন। সচরচার এনএসআই, ডিজিএফআই, ডিএসবি, এসবি, ডিবি এসব গোয়েন্দ সংস্থার লোকদের সারাদিন এই শহরের গুরুত্ব পুর্ন এলাকায় বিচরন করতে দেখা গেলেও থেমে নেই এখানে সন্ত্রাসীদের সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করতে বোমা মজুদ এর ঘটনা। এছাড়া মাঝে মধ্যে ও এখানে দেখা যায় পুলিশ, বিজিবি ও ডিবি’র অস্ত্র উদ্ধার। বেশীর ভাগ পরিত্যাক্ত অবস্তায় মাঝে মধ্যে দুই একটি আসামি সহ হয় আটক। চলতি মাসে গত ৮দিনে ঢিলে ঢালা অভিযানে এই বন্দর এলাকা থেকে উদ্ধার হয়েছে তিন দফায় ৬৬ টি বোমা।

চলতি মাসের ২ তারিখ থেকে শুরু করে ৮ তারিখ পর্যন্ত তিনবার বেনাপোল স্থল বন্দর এলাকায় উদ্ধার হয় ৬৬ টি শক্তিশালী ককটেল বোমা। সর্বশেষ গত ৮ সেপ্টেম্বর বেনাপোল বন্দরের একটি ক্যামিকেল গুদামের পাশ থেকে উদ্ধার হয় ২৫ টি তাজা ককটেল। এসব ককটেল উদ্ধার হওয়ার পর থেকে এলাকায় বিরাজ করছে আতঙ্ক। সন্ত্রাসীরা বন্দর এলাকার লোকালয়ের বাড়ির আশে পাশে বোমা মজুদ রাখায় মানুষ ভয়ে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

স্থানীয়রা অভিযোগ করছে এত সব গোয়েন্দা সংস্থার লোক থাকা সত্বেও এত বোমা মজুদ হয় কি ভাবে। আবার লোক বিহিন বোমা বা ককটেল উদ্ধারও নাটকীয় বলে মন্তব্য করছে এসব সাধারন নাগরিক। তারা বলছে সরকারের একটি গুরুত্বপুর্ণ বানিজ্যিক শহর বেনাপোল। এই পথে ভারত থেকে দেশের সিংহ ভাগ কলকারখানার উৎপাদনের কাচামাল আসে। আর সেই গরুত্ব পুর্ণ শহর বেনাপোলে যদি বার বার বন্দর এলাকার মধ্যে এসব বিস্ফোরক জাতিয় জিনিস পাওয়া যায় তবে এপথে আমদানি রপ্তানি বন্ধ করে এ বন্দর থেকে মুখ ফিরিয়ে নিতে পারে। তারা আরো বলে এত গোয়েন্দা নজরদারিতে বেনাপোল বন্দর থাকা সত্বেও কি ভাবে প্রবেশ করছে বন্দর এলাকায় ককটেল বোমা। এ পর্যন্ত কোন গেয়েন্দা তৎপরতায় বেনাপোল বন্দর এলাকা থেকে ককটেল উদ্ধার হতে দেখা যায়নি। এসব নাগরিকরা বলেন, সেনাবাহিনী অথবা বিজিবির ডগ স্কোয়ার্ড দ্বারা বন্দর এলাকায় তল্লাশি চালালে মিলতে পারে প্রচুর ককটেল বোমা। এখানে শ্রমিকদের মাঝে আভ্যান্তরিন কোন্দলের কারনে এসব ককটেল পুর্বে থেকে নিজেরা নিজেরা রাজনৈতিক ছত্র ছায়ায় মজুদ রাখে।

চলতি মাসের ২ তারিখে যশোর র‌্যাব এই বন্দরের ২২ নং গোডাউনের বিপরীত দিক থেকে উদ্ধার করে ১৮ টি ককটেল বোমা। এর একদিন পর বেনাপোল পোর্ট থানা ওই বোমা রাখার দায়ে আটক করে ৮৯১ শ্রমিক ইউনিয়ন এর লেবার সরদার বাদলকে। এরপর ওই দিন রাত্রে উদ্ধার করে বেনাপোল পোর্ট থানা ২৩ টি ককটেল। সর্বশেষ গত ৮ সেপ্টেম্বর র‌্যাব উদ্ধার করে বেনাপোল বন্দর এলাকার একটি ক্যামিকেল গোডাউনের পাশ থেকে ২৫ টি ককটেল ।

বেনাপোল পোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামাল হোসেন ভুইয়া বলেন, সম্প্রতি কয়েকটি অভিযানে র‌্যাব ও পুলিশ বোমা উদ্ধার করেছে। আমাদের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। কোন প্রকার নাশকতা যাতে না হয় এবং তার জন্য বন্দর এলাকায় ককটেল বোমা মজুদ যাতে না হতে পারে তার জন্য রয়েছে বিষেষ নজরদারি।

 


শেয়ারঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় অন্যান্য সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২২ Dhaka Mail 24
Developed By UNIK BD