ঢাকা, শনিবার, ২রা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

গাজীপুরের ৫ আসনের ৪টিতেই কঠিন চ্যালেঞ্জর মুখোমুখি আ’লীগের প্রার্থীরা

গাজীপুরের ৫ আসনের ৪টিতেই কঠিন চ্যালেঞ্জর

মুখোমুখি আ’লীগের প্রার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক,  ঢাকা
গাজীপুরে সংসদীয় আসন ৫টি । সবক’টি আসনেই স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বঞ্চিত একাধিক প্রার্থী । স্বতন্ত্র প্রার্থীদের মধ্যে একজন বর্তমান সংসদ সদস্যও রয়েছেন । এ কারণে ৫টির মধ্যে অন্তত: ৪টি আসনে আসন্ন নির্বাচনে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে যাচ্ছেন আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রাপ্ত প্রার্থীরা । কোন কোন আসনে বিরাজ করছে টানটান উত্তেজনা ।

জানা গেছে, গাজীপুর-১ (কালিয়াকৈর ও মহানগরীর ১৮টি ওয়ার্ড) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী বর্তমান সংসদ সদস্য আ ক ম মোজাম্মেল হক। তিনি ওই সংসদীয় আসনের বাসিন্দা নন। তাছাড়া গত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে নির্বাচন ও কালিয়াকৈর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর ভরাডুবিসহ নানা কারণে আওয়ামী লীগের একটি অংশ তাঁর উপর বেজায় ক্ষুব্ধ। মন্ত্রীর সাথে লড়তে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন তিনজন। তারা হলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রাসেল, গাজীপুর মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক কামরুল আসনান সরকার রাসেল এবং আওয়ামী লীগ কর্মী মো. নূরে আলম সিদ্দিকী। এ আসনে কঠিন লড়াই হতে পারে ধারনা স্থানীয়দের।

গাজীপুর-২ (গাজীপুর শহর ও টঙ্গী) আসনে নৌকা পেয়েছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল। তিনি এই আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন প্রতিমন্ত্রীর এক সময়ের ঘনিষ্ঠ মহানগর যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক মো. সাইফুল ইসলাম। এ আসন থেকে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলম প্রার্থী হওয়ার গুঞ্জন রয়েছে। জাহাঙ্গীর আলম প্রার্থী না হলে প্রতিমন্ত্রীর জয় সহজ হতে পারে এমন ধারণা ভোটারদের ।

গাজীপুর-৩ (শ্রীপুর ও সদরের তিন ইউনিয়ন) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপিকা রুমানা আলী টুসি। তিনি এ আসনের সাবেক জনপ্রিয় সংসদ সদস্য ও প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট মো. রহমত আলীর মেয়ে। মনোনয়ন চেয়েও না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন এই আসনের বর্তমান এমপি জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ইকবাল হোসেন সবুজ। মঙ্গলবার তিনি মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। তাঁর স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার ঘোষণায় স্থানীয় আওয়ামী লীগে বিভক্তির সৃষ্টি হয়েছে। বিরাজ করছে উত্তেজনা। সোমবার রাতে উপজেলার বরমী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক হারুরুর রশিদের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। এসব কারণে সেখানে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

গাজীপুর-৪ (কাপাসিয়া) আসনে নৌকা পেয়েছেন বর্তমান এমপি দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদের মেয়ে সিমিন হোসেন রিমি। স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে অংশ নিতে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন তাজউদ্দীন আহমদের ভাগিনা কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা শিল্পপতি আলম আহমেদ। আলম আহমেদ দীর্ঘদিন ধরে প্রচারনা চালেচ্ছেন। নানা কারণে এ আসনেও মুখোমখি হতে হবে মামাত-ফুফাত ভাইবোনকে।

গাজীপুর-৫ (কালীগঞ্জ ও সদরের বাড়িয়া ইউনিয়ন ও মহানগরীর পূবাইল) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন সাবেক সংসদ সদস্য ডাকসুর সাবেক ভিপি আখতারউজ্জামান। এলাকায় তিনি ক্লিন ইমেজের মানুষ হিসেবে পরিচিত। এখানে নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান এমপি মেহের আফরোজ চুমকি। তিনি সাবেক সংসদ সদস্য, সাবেক প্রতিমন্ত্রী। দলীয় কতিপয় নেতা-কর্মীর নানা কর্মকান্ডে আওয়ামী লীগের মধ্যে বিভাজ রয়েছে। এই আসনেও নৌকাকে কঠিন পরীক্ষার মধ্যে পড়তে হতে পারে ধারনা স্থানীয়দের।

শেয়ার করুনঃ

স্বত্ব © ২০২৩ ঢাকা মেইল ২৪